দুর্গাপুরের রেলস্টেশন সংলগ্ন রায়ডাঙায় এক যুবতীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় শনিবার সকালে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এই ঘটনার পর স্থানীয় মানুষ সন্দেহজনক দুই যুবককে আটক করে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

জানা গেছে, মৃত যুবতীর নাম কাজল মুরারী(২০)। মুর্শিদাবাদের বাসিন্দা। নদিয়ার বাসিন্দা সুবীর সর্দার নামে এক যুবকের কাছে দুর্গাপুরের রেল স্টেশন সংলগ্ন রায়ডাঙায় একটি ভাড়া বাড়িতে নেটওয়ার্কিং ব্যবসায় মামা সমর মুরারীর হাত ধরে কাজে যোগদান করেন কাজল। এবং রায়ডাঙায় একটি মেসে কাজল মুরারী সহ আরও তিন মহিলা থাকতেন বলে জানা গেছে। শনিবার সকালে কাজল মুরারীর রক্তাক্ত মৃতদেহ একটি টোটো থেকে নামাতে দেখে স্থানীয় মানুষ সুবীর সর্দার ও কাজল মুরারীকে আটক করে মারধর করে কোকওভেন থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পুলিশ তাঁদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ গোটা ঘটনার রহস্য উন্মোচন করতে তদন্তে নেমেছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় মানুষের দাবি, মৃতার সঙ্গে নেটওয়ার্কিং ব্যবসায়ী সুবীর সর্দারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু কেন রহস্যজনক মৃত্যু সেই প্রশ্ন তোলেন স্থানীয় মানুষ। ধৃতদের দাবি কাজল মুরারী অসুস্থ ছিল। হাসপাতালে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় কাজলের। কিন্তু কেন কাজল রক্তাক্ত সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি ধৃতরা বলে দাবি স্থানীয় মানুষের।


Like Us On Facebook