১৯৫৫ সালে উদ্ধোধন হয়, দীর্ঘ প্রায় ৬৪ বছর পর দুর্গাপুরে দামোদর ব‍্যারাজের সংস্কারের কাজ শুরু হল। ব্যারাজের ১১টি পুরানো লকগেট সরিয়ে নতুন লকগেট বসানো হবে বলে জানা গেছে। ব্যারাজের সংস্কারের প্রথম ধাপ হিসেবে মঙ্গলবার থেকে দামোদর ব‍্যারাজের জলে ডুবুরি নামিয়ে কংক্রিটের কাঠামোর ছবি তুলে পর্যবেক্ষণের কাজ শুরু হল। একটি বেসরকারি সংস্থার ডুবুরি ব্যারাজের জলে নেমে মঙ্গলবার অত্যাধুনিক ক্যামেরার সাহায্যে ছবি তোলেন। উল্লেখ্য, সংস্কারের অভাবে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে দামোদর ব‍্যারাজের ১ নং লকগেট বেঁকে গিয়ে ব্যারাজের জল বেরিয়ে যায়। দুর্গাপুরও জলশূন্য হয়ে পড়ে। তারপর দামোদর দিয়ে অনেক জল গড়িয়েছে। শেষমেশ দামোদর ব্যারাজ সংস্কারের কাজ শুরু হল।

ডিভিসি সূত্রে জানা গেছে, ডিজিটাল ক্যামেরা সহ অত্যাধুনিক রিমোটলি অপারেটেড ভেহিক্যালের (আরওভি) সাহায্যে দামোদর ব্যারাজের আপ স্ট্রিমে জলের নীচে কংক্রিটের কাঠামোর ছবি তুলে ব্যারাজের উপরে থাকা মনিটরে সই ছবি বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। জানা গেছে, এই আরওভি’র সাহায্যে তোলা ছবি থেকে ব্যারাজের জলের নীচে পলির পরিমাণ, কংক্রিটের কাঠামোর অবস্থা ইত্যাদি পর্যবেক্ষণ করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। কোথাও সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম ফাটল থাকলে এই ক্যামেরায় ধরা পড়বে এবং তা মেরামত করা হবে বলে জানা গেছে। পাশাপাশি ১১ টি পুরানো লকগেটও সরিয়ে নতুন লকগেট বসানো হবে।

ডিভিসি সূত্রে আরও জানা গেছে, আপ স্ট্রিমের কাজ সম্পন্ন হলে ডাউন স্ট্রিমের কাজ শুরু হবে। ব্যারাজের ডাউন স্ট্রিমে যেখান দিয়ে জল বের হয় সেখান থেকে ৩০ কিমি পর্যন্ত বোল্ডার বিছিয়ে সংস্কার করা হবে। মাঝে জলের গতি রোধ করার জন্য যেসব পুরানো ব্লক রয়েছে তা সরিয়ে নতুন ব্লক এবং ব্যারাজের ডাউন স্ট্রিমের দেওয়ালেও প্রয়োজনীয় মেরামত করা হবে। তাছাড়া ব্যারাজের উপরের রাস্তাটিও নতুন ভাবে তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে। ডিভিসির চিফ ইঞ্জিনিয়ার সঞ্জয় কুমার সিং জানান, দামোদর ব‍্যারাজের সংস্কারের জন্য ৯০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। কাজ শেষ করতে প্রায় দু’বছর সময় লাগবে।



Like Us On Facebook