জনরোষ থেকে বাঁচতে সতেরো দিন ঘরছাড়া থাকার পর অবশেষে পুলিশি প্রহরায় রবিবার বাড়ি ফিরলেন দুর্গাপুরের ৩৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডল। রবিবার কোক ওভেন থানার পুলিশের কড়া নিরাপত্তা বলয় ৩৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডলকে আশীষ নগরের বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

স্থানীয় মানুষের অভিযোগ, ২৯ এপ্রিল বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা আসনে ভোট পর্ব শেষ হওয়ার পর দুর্গাপুরের ৩৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডল স্থানীয় আশীষ নগরের বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি ঢুকে তাঁরা তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দেয়নি এই অনুমানে মারধর করেন। স্থানীয় মহিলাদেরও হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। এরপর দলমত নির্বিশেষে রাজনৈতিক রঙ সরিয়ে সকলে মিলে স্থানীয় কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডলের বাড়ি ও দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডল।

এই ঘটনার পর কাউন্সিলরকে গ্রেফতারের দাবিতে স্থানীয় মানুষ একজোট হয়ে কোক ওভেন থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান এবং ৩৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলরকে সরাতে পুনরায় পুরভোটের দাবি জানান। তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব বিষয়টিকে বিরোধী দলের চক্রান্ত বলে দাবি করে। এরপর পশ্চিম বর্ধমান জেলার তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব ঘরছাড়া কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডলকে ঘরে ফেরাতে পুলিশ প্রশাসনের সাহায্য নেয়। শেষমেশ রবিবার পুলিশি হস্তক্ষেপে ঘরছাড়া কাউন্সিলর শশাঙ্ক শেখর মন্ডল বাড়ি ফিরলেন পুলিশি ঘেরাটোপে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শশাঙ্ক শেখর মন্ডলের বাড়ির সামনে পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছে।

বর্ধমান ডট কম-এর খবর নিয়মিত আপনার ফেসবুকে দেখতে চান?

Like Us On Facebook