করোনা মোকাবিলায় দেশে লকডাউন চলছে। লকডাউনই একমাত্র উপায় বলছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। আর এই লকডাউনের জেরে পরিযায়ী শ্রমিকরা পড়েছেন মহা বিপদে। করোনা ভাইরাসের জেরে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে একদিকে কাজ বন্ধ অন্যদিকে খাবারের অভাব এবং মাথার উপর ছাদের অভাব। তাই নিজ নিজ বাড়ি ফেরার লক্ষে কেউ জাতীয় সড়ক ধরে আবার কেউ রেল লাইন ধরে হাঁটতে শুরু করেছেন গ্রামের উদ্দেশ্যে। দুর্গাপুরের পানাগড়ে রেল লাইনে এইরকমই চিত্র দেখা গেল। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে প্রখর রোদ উপেক্ষা করে দুগ্ধপোষ্য শিশুদের নিয়ে রেল লাইন ধরে বিভিন্ন বয়সী মানুষ চলেছেন আপন গন্তব্যে। ভিন রাজ্যের শ্রমিকরাও রেল লাইন বরাবর হেঁটে বাড়ি ফিরতে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছেন। পানাগড় রেল স্টেশনে রেল পুলিশ তাঁদের আটকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করে। রেল পুলিশের মানবিক মুখ দেখে সকলের মুখে হাসি ফোটে।

সোমবার রাতে পানাগড় রেলস্টেশনে রেল লাইন ধরে হেঁটে চলা একদল ভিন রাজ্যের শ্রমিক এসে পৌঁছলে পানাগড় রেলস্টেশনে রেল পুলিশ তাঁদের আটকে দেয়। রাতেই স্টেশনে তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয় বলে জানা গেছে। শ্রমিকদের তেমন কোন উপসর্গ না মেলায় রাতে তাঁদের খাওয়ানো হয় রেলস্টেশনেই। মঙ্গলবার সকালে ২৬ জন ভিন রাজ্যের শ্রমিকদের পাঠানো হয় অন্ডালের দক্ষিণ খন্ডের অস্থায়ী ক্যাম্পে। সেখানে তাঁদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করে অন্ডাল ব্লক প্রশাসন। অন্ডালের ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক ঋত্বিক হাজরা বলেন, ‘এইসব শ্রমিকদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে স্থানীয় দক্ষিণ খন্ডের একটি স্কুলে। এদের খাওয়া ও থাকার সমস্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে প্রশাসন থেকে।’ লকডাউন চলাকালে এই সব শ্রমিকরা এখানেই থাকবেন বলে জানিয়েছেন ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক।


Like Us On Facebook