আর পৃথক আন্দোলন নয়। দুর্গাপুর বাঁচাতে সকলকে নিয়ে সমষ্টি আন্দোলন করার আহ্বান জানাল শাসকদলের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসি নেতৃত্ব। মঙ্গলবার দুর্গাপুরে অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্টের (এএসপি) সামনে কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রমিক স্বার্থবিরোধী এএসপি কারখানা বিক্রির গ্লোবাল টেন্ডারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখায় আইএনটিটিইউসির কর্মীরা। মঙ্গলবার সকালে প্রায় তিন ঘন্টা এএসপি কারখানার সামনে মূল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ প্রদর্শন চলে আইএনটিটিইউসি পক্ষ থেকে। বিক্ষোভ শেষে এএসপি এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক চিত্তরঞ্জন মুখার্জি বলেন, ‘এএসপি কারখানা বাঁচাতে, দুর্গাপুর বাঁচাতে, শ্রমিক স্বার্থে কোন রাজনৈতিক ভেদাভেদ নয়। আমরা সমস্ত রাজনৈতিক দলের শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে রাজি। আমাদের লক্ষ্য যেকোন মূল্যে এখন এএসপি কারখানাকে বাঁচাতে হবে। কেন্দ্রের এএসপি কারখানার বিলগ্নিকরনের বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।’ এদিন ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘের(বিএমএস) পক্ষ থেকেও কারখানার গেটের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করা হয়।

এদিকে, এএসপি কারখানা নিয়ে গ্লোবাল টেন্ডার ডাকাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা আসনের বিজেপি সাংসদের বাড়ির ঠিকানায় ‘বিশ্বাস ঘাতক সুরিন্দর’ লেখা পোস্ট কার্ড পাঠানোর কর্মসূচির সূচনা করল দুর্গাপুরের ১৩ টি বাম সংগঠনের কর্মীরা। প্রতিবাদ কর্মসূচির প্রথম দিনে দুর্গাপুরের এসবিএসটিসি গ্যারেজ সংলগ্ন ১ নং পোস্ট অফিস থেকে প্রথম দিনে ১০০০ পোস্ট কার্ড পাঠালেন বাম কর্মীরা। সিপিএম কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এই ভাবে ১ আগস্ট পর্যন্ত ধাপে ধাপে ২৫ হাজার পোস্ট কার্ড পাঠানো হবে সাংসদের বাড়ির ঠিকানায়। সঙ্গে বাম সংগঠনের নতুন প্রজন্মের কর্মীরা ই-মেলেও প্রতিবাদ পত্র পাঠাবে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় জনমত গঠন করবে।

বর্ধমান ডট কম-এর খবর নিয়মিত আপনার ফেসবুকে দেখতে চান?


Like Us On Facebook