দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার এক চতুর্থ শ্রেণির মহিলা কর্মী যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনলেন সংস্থার এক উচ্চপদস্থ আধিকারিকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় সোমবার দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের শ্রমিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়ায়।

জানা গেছে, নির্যাতিতা মহিলার স্বামী দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার একজন ঠিকা কর্মী ছিলেন। কর্মরত অবস্থায় স্বামীর দুর্ঘটনায় মৃত্যুর পর স্ত্রী হিসেবে ওই মহিলা দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানায় চাকরি পান। এদিকে, অভিযুক্ত ডিএসপির উচ্চ পদস্থ আধিকারিক সম্প্রতি ভিলাই থেকে ডিএসপিতে পোস্টিংয়ে এসেছেন। নির্যাতিতার অভিযোগ, প্রায়ই ওই মহিলাকে হেনস্থা করেন অভিযুক্ত আধিকারিক এবং সোমবার সকালেও কর্মক্ষেত্রে গেলে ডিএসপির ওই আধিকারিক ফের তাঁর শ্লীলতাহানি করেন। ঘটনার কথা শাসকদলের শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের কানে পৌছতেই তাঁরা বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হন। নির্যাতিতার আরও অভিযোগ, এর আগে বিষয়টি নিয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেও কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে উদাসীন থেকেছে।

সোমবার সকালে ডিএসপির তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের বিষয়টি জানান নির্যাতিতা। এরপরেই আই এনটিটিইউসি বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হয়। আইএনটিটিইউসির ডিএসপি ইউনিটের নেতা হিমাংশু আঁশ বলেন, ‘এই ধরনের জঘন্য কাজের তীব্র নিন্দা করছি আমরা। আমরা অভিযুক্ত ডিএসপির উচ্চপদস্থ আধিকারিকের বিরুদ্ধে তদন্ত করে কর্তৃপক্ষের কাছে কড়া শাস্তি গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি মহিলা কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুক কর্তৃপক্ষ।’

ডিএসপির আধিকারিকের বিরুদ্ধে এক মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগের তদন্তে নামলেন গ্রিভান্স সেলের চার সদস্যের এক মহিলা প্রতিনিধিদল। দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার জনসংযোগ আধিকারিক বিবি রায় বলেন, ‘আমরা একটা অভিযোগ পেয়েছি। সেটা গ্রিভান্স সেলে পাঠানো হয়েছে। মহিলাদের দ্বারা পরিচালিত চার সদস্যের একটি দল এই অভিযোগের তদন্ত করবেন। তদন্ত রিপোর্ট আসার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

বর্ধমান ডট কম-এর খবর নিয়মিত আপনার ফেসবুকে দেখতে চান?

Like Us On Facebook