লকডাউনের জন্য বন্ধ গণ পরিবহণ। একদল পরিযায়ী শ্রমিক তাঁরা কেউ মুর্শিদাবাদ থেকে আবার কেউ ঝাড়খন্ড অথবা বিহারের বিভিন্ন এলাকা থেকে কাজ করতে গিয়েছিলেন। কেউ গিয়েছিলেন ওড়িশা, কেউ গিয়েছিলেন কলকাতায় কেউ বা আবার হুগলিতে। পরিযায়ী শ্রমিকদের অভিযোগ, কাজ বন্ধ, খাবার নেই, তাই তাঁরা বাধ্য হয়েই বেড়িয়ে পড়েছেন বাড়ির উদ্দেশ্যে। ফলে ২ নম্বর জাতীয় সড়কের দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে জুড়ে শুধুই মানুষ।

দীর্ঘ পথ হাঁটতে হাঁটতে এরা ক্লান্ত, ক্ষুধার্ত। তবু বাড়ি ফিরতে বদ্ধপরিকর তাঁরা। বর্ধমান জেলা প্রশাসনের তরফে জাতীয় সড়ক ধরে চলা প্রায় ৪০০ জনকে আটকে দেওয়া হয়েছে জামালপুরের জৌগ্রামে। পঞ্চায়েত ও ব্লকপ্রশাসনের উদ্যোগে তাঁদের স্থানীয় একটি স্কুলে রাখা হয়েছে। সেখানেই তাঁদের খাবারের ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন। জামালপুরের বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার জানিয়েছেন, ৪২৫ জন আছেন।তাঁদের নাম এবং কোথায় যাবেন তার তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। প্রশাসনের পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত তাঁদের স্কুলে রেখে খাওয়ানোর ব্যবস্থা হবে। তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাও করা হবে।

Like Us On Facebook