গত ৩ নভেম্বর বর্ধমানের গোদায় সন্তানসম্ভবা কুকুরকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে অভিযুক্ত মহিলাকে গ্রেফতার করল বর্ধমান থানার পুলিশ। ধৃতের নাম আসিয়া বেগম। ঘটনার পর থেকেই বর্ধমানের নবাবহাটে আত্মীয়ের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়েছিলেন তিনি। মঙ্গলবার সেখান থেকেই বর্ধমান থানার পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন পশুপ্রেমী সংগঠনের সদস্যরা।

বর্ধমান শহরের একটি পশুপ্রেমী সংগঠন অ্যানিম্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্যরা বর্ধমান থানায় অভিযোগ করে জানিয়েছিলেন, শহরের গোদা খন্দকর পাড়ার বাসিন্দা এক মহিলা ৩ নভেম্বর রাতে তাঁর বাড়ির সামনে একটি সন্তানসম্ভবা কুকুরকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করে এবং তার সদ্য জন্ম নেওয়া দুটি বাচ্চাকে মেরে ফেলা হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের সংস্থায় এই ঘটনার বিষয়ে জানান। পরের দিন বিকেলে আধপোড়া মা কুকুরটি আরও তিনটি মৃত সন্তান প্রসব করার পর ওই মা কুকুরটিও মারা যায়। যদিও ধৃতের বক্তব্য, ভয় দেখানোর জন্য মুখের সামনে আগুনের ছ্যাঁকা দিতে চেয়েছিলাম। কুকুরটি যে সন্তানসম্ভবা তা জানা ছিল না।

Like Us On Facebook