আসানসোল উত্তর থানার উত্তর ধাদকায় বাড়িতে শ্রাদ্ধের কাজ থাকায়, শান্তিজল নিয়ে পুকুরে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে গেল বাবা ও ছেলে৷ প্রথমে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে যায় দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র দিব্যেন্দু পাল(১৯)৷ তাকে বাঁচাতে গিয়ে তলিয়ে যান বাবা দীপক পাল (৪৫)৷ ঘটনার আকস্মীকতায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীপকবাবুর আত্মীয়ের শ্রাদ্ধের কাজ ছিল এদিন। শ্রাদ্ধের কাজ শেষ হলে শান্তিজল নিয়ে অন্যান্যদের সঙ্গে এলাকার একটি পুকুরে স্নান করতে যান দীপকবাবু ও দিব্যেন্দু। দিব্যেন্দু প্রথমে স্নান করতে নেমে পুকুরের গভীরে চলে গেলে তলীয়ে যায়। ছেলেক বাঁচাতে গিয়ে দীপকবাবুও জলে নামেন। তিনিও তলীয়ে যান। খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। ঘটনাস্থলে আসে আসানসোল উত্তর থানার পুলিশ। স্থানীয়দের সাহায্যে পুলিশ দীপকবাবু ও দিব্যেন্দুকে উদ্ধার করে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন। এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি পুকুরটি সংস্কার করা হয়েছে। কয়েকদিনের বৃষ্টিতে কানায় কানায় ভরে উঠেছে পুকুরগুলি। জলের গভীরতা আন্দাজ করতে না পেরেই গভীর জলে নেমে তলিয়ে যায় দিব্যেন্দু।

Like Us On Facebook