[adrotate group="4"]
[adrotate group="4"]
[adrotate group="5"]
[adrotate group="5"]

রাজ্যের মধ্যে একমাত্র ইউজিসি অনুমোদিত সেল্ফ ফিনান্সিং বেসরকারি কলেজ হিসাবে বাম আমলে বর্ধমানে তৈরি হওয়া কলেজ অফ আর্ট অ্যান্ড ডিজাইন (ক্যাড) দীর্ঘ প্রায় ১৩ বছর পর নিজেদের ভবন তৈরির কাজে হাত দিল। বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ মমতাজ সংঘমিতার সাংসদ তহবিল থেকে ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে বর্ধমানের তালিত এলাকায় আমার মৌজায় প্রায় আড়াই বিঘে জমির ওপর শনিবার কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হল।

কলেজের শিক্ষক ঠাকুরানন্দ পাল জানিয়েছেন, ২০০৭ সালে কলেজের ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে নেওয়া প্রায় ৫২ লক্ষ টাকা দিয়ে এই জমি কেনা হয়। ২০০৪ সালে কলেজ শুরু হয় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন গোলাপবাগের কৃষ্ণসায়র পার্কে। কিন্তু নানা কারণে জটিলতা এবং সেই সময় সিপিএমের তথাকথিত কিছু নেতা এই কলেজকে কার্যত কুক্ষিগত করে রাখে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের আপত্তিতে কলেজ উঠে চলে যায় ২০১৪ সালে বর্ধমানের নতুনগঞ্জ এলাকায়। বর্তমানে কলেজে তিনটি বিভাগে মোট ২৪০ জন ছাত্রছাত্রী রয়েছেন। এছাড়াও গোটা দেশ বিদেশ জুড়ে রয়েছে এই কলেজের খ্যাতনামা ছাত্রছাত্রীরা।

শনিবার কলেজের নিজস্ব জায়গায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন সাংসদ মমতাজ সংঘমিতা। হাজির ছিলেন বর্ধমান-১এর বিডিও দেবদুলাল বিশ্বাস, বর্ধমান-১এর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ফাল্গুনী দাস রজক সহ কলেজের সম্পাদক মৃদুল সেন, সভাপতি জগবন্ধু মেদ্দা প্রমুখরা। বিডিও জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই তাঁরা এই কলেজ তৈরির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের আরআইডিএফ প্রকল্পে দেড় কোটি টাকার একটি প্রোজেক্ট পাঠিয়েছেন। প্রথম দফায় পেন্টিং বিভাগ তৈরি করা হবে। পরে তৈরি হবে অ্যাপ্লায়েড আর্ট এবং স্কাল্পচার ইউনিট বা ভাস্কর্য কেন্দ্র। বিশ্বভারতীর কলাভবন, কলকাতার সরকারি চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয় এবং রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঝে এটাই একমাত্র উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের মধ্যে শিল্পচর্চার কেন্দ্র।

বর্তমানে সোসাইটি অ্যাক্টের মাধ্যমে কলেজ পরিচালিত হলেও খুব শীঘ্রই তৈরি হতে চলেছে কলেজের গভর্নিং বডি। নাম না করেই এদিন বিডিও দেবদুলাল বিশ্বাস সাফ জানিয়েছেন, ব্যক্তিগতভাবে এই কলেজকে ব্যবহার করা হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একইসঙ্গে এই কলেজ যাতে সরকারি কলেজ হিসাবে স্বীকৃতি পায় সে ব্যাপারেও চেষ্টা করা হবে। যদিও বর্তমানে এই আর্ট কলেজ বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী অনুমোদন প্রাপ্ত এবং এখানে ব্যাচেলর অফ ফাইন আর্টস, মাষ্টার অব ফাইন আর্টস এবং ডিপ্লোমা ইন ভিস্যুয়াল আর্টস ডিগ্রী চালু রয়েছে।

Like Us On Facebook
[adrotate group="6"]
[adrotate group="6"]
[adrotate group="7"]
[adrotate group="7"]