আমি ঝালমুড়ি খেতে খেতে সৌজন্যের রাজনীতি করেছিলাম। এখন তাঁরা সেই সৌজন্য ফিরিয়ে দিতে পারবেন কিনা সেটা ওনাদের বিষয়। বৃহস্পতিবার অন্ডালের কাজী নজরুল ইসলাম বিমান বন্দরে নেমে এই কথা বলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

আসানসোলের কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ডিলিট প্রদান করবে এই অনুষ্ঠানে রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠী উপস্থিত থাকছেন অথচ আসানসোলের সংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে অভিযোগ বিজেপির, এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে বাবুল সুপ্রিয় কৌশলে বলেন আমি ঝালমুড়ি খেতে খেতে সৌজন্যের রাজনীতি শুরু করেছিলাম কিন্ত সেই সৌজন্যের রাজনীতি তাঁরা ফিরিয়ে দেবেন কিনা সে তাঁরাই জানেন। কারণ আমি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে মানুষের কল্যাণে সবসময় আমাকে কাজ করতে হয়। আমি ঝালমুড়ি খেতে খেতে দিদির গাড়িতে চড়ে আসানসোলের অনেক সমস্যার আলোচনা করেছিলাম। বাবুল বলেন তাতে আখেরে আসানসোলের লাভ হয়েছে। উদাহরণ দিয়ে বলেন, যেমন অন্ডাল বিমানবন্দর, ইএসআই হাসপাতাল এই বিষয়গুলি সেদিনের ঝালমুড়ি খেতে খেতে আলোচনার বিষয় ছিল। তিনি বলেন চল্লিশ বছর ধরে যাত্রীদের দাবি ছিল অন্ডালে রাজধানীর স্টপেজ। সেই দাবি মেনে রাজধানীর একটা স্টপেজ করেছি আমি। অন্ডাল বিমানবন্দর চালু হয়েছে আমারই জন্য।

Like Us On Facebook